ওবামার বক্তব্য নকল, তোপের মুখে ট্রাম্পপত্নী

প্রকাশিত: ৪:২৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩০, ২০১৬

ওবামার বক্তব্য নকল, তোপের মুখে ট্রাম্পপত্নী

ELECTION-REPUBLICANS

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিশেল ওবামার বক্তব্য নকল করার অভিযোগের মধ্যেই রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের তৃতীয় স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্পের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে এবার বিতর্ক তৈরি হয়েছে। বিতর্কের মুখে আকষ্মিকভাবে নিজের ওয়েবসাইট সরিয়ে নিয়েছেন সাবেক এই মডেলকণ্যা।

ওয়েবসাইটটিতে তিনি স্লোভেনিয়ার লুবজানা ইউনিভার্সিটি থেকে আর্কিটেকচারে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন বলে লেখা থাকলেও সাবেক এই মডেল আসলে স্কুল থেকে ‘ঝরে পড়া’ বলে এক পত্রিকার প্রতিবেদনে দাবির পর এই বিতর্ক শুরু হয়।

বৃহস্পতিবার এক টুইটার পোস্টে নিজের ওয়েবসাইট সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর মেলানিয়ার ওয়েবসাইট www.melaniatrump.com  এর ‌‘ভিজিটরদের’ ট্রাম্পের ওয়েবসাইট www.trump.com  এ ঘুরিয়ে নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে সিএনএন।

টুইটার পোস্টে মেলানিয়া বলেন, ওয়েবসাইটটি ২০১২ সালে তৈরি করা হয়েছিল এবং এখন সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে, কারণ এটি আমার বর্তমান ব্যবসায়িক ও পেশাগত আগ্রহকে যথাযথভাবে প্রতিফলিত করে না।

এই পোস্টের পর আর কোনো মন্তব্য বা কোনো সুনির্দিষ্ট খুঁত চিহ্নিত করেননি অভিযোগের মুখে থাকা ট্রাম্পের এই সুন্দরী স্ত্রী।

মার্কিন গণমাধ্যমগুলো জানায়, মেলানিয়ার ওয়েবসাইটে দেওয়া শিক্ষাগত যোগ্যতার তথ্যের সঙ্গে সম্ভাব্য এই ‘ফ্রাস্ট লেডি’র একটি জীবনীতে শিক্ষাগত যোগ্যতার তথ্যের গরমিল নিয়ে হাফিংটন পোস্ট প্রথম প্রতিবেদন প্রকাশের পর বিষয়টি সামনে আসে।

মেলানিয়ার বন্ধ হয়ে যাওয়া ওয়েবসাইটে দাবি করা হয়, স্লোভেনিয়া থেকে তিনি আর্কিটেকচারে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন।

তবে তার জীবনীভিত্তিক বই ‘মেলানিয়া ট্রাম্প: দ্য ইনসাইড স্টোরি’তে ঘোষণা দেওয়া হয়, মডেলিং শুরুর এক বছরের মধ্যে মেলানিয়া তার দ্রুত বিকশিত হতে থাকা ক্যারিয়ারে আরো মনোযোগী হতে পড়াশোনা ছেড়ে দেন।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে রিপাবলিকান পার্টির জাতীয় কনভেনশনের তার দেওয়া ভাষণ ২০০৮ সালে ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় কনভেনশনে মিশেল ওবামার ভাষণ থেকে নকল করা বলে অভিযোগের পর মেলানিয়ার শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে এই তথ্য উন্মোচিত হলো।

সূত্র: সিএনএন

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com