কুয়েতে পাপুলের ৪ বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশিত: ১২:১০ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৯, ২০২১

কুয়েতে পাপুলের ৪ বছরের কারাদণ্ড

সুরমা মেইল ডেস্ক : লক্ষ্মীপুরের সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের মানব ও মুদ্রা পাচারের মামলায় ৪ বছরের কারাদণ্ড হয়েছে। পাশাপাশি ৫৩ কোটি টাকা জরিমানা করেছে কুয়েতের ফৌজদারি আদালত।

 

বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) কুয়েতের ফৌজদারি আদালতের বিচারক আবদুল্লাহ আল ওসমান এ রায় দেন।  কুয়েতের সংবাদমাধ্যমগুলো এ খবর প্রকাশ করেছে।

 

তবে এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে দেশটিতে অবস্থিত বাংলাদেশের দূতাবাস আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি।

 

এদিকে, আল-কাবাসের এক খবরে বলা হয়েছে, অর্থ ও মানবপাচারের মামলায় পাপুলকে চার বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে পাপুলের কাজে সহায়তাকারী কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাবেক কর্মকর্তা মাজেন আল জাররাহসহ কুয়েতি দুই কর্মকর্তাকেও চার বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

 

রায়ে পাপুলসহ দণ্ডিতদের প্রত্যেককে ১৯ লাখ কুয়েতি দিনার অর্থদণ্ডও দেওয়া হয়েছে।

 

বাংলাদেশের স্বতন্ত্র সাংসদ ও কুয়েতের রেসিডেন্ট পারমিটধারী ব্যবসায়ী কাজী শহীদ পাপুলকে গত ৬ জুন মানবপাচার, ভিসা জালিয়াতি ও অর্থপাচারের অভিযোগে গ্রেপ্তার করে কুয়েতের পুলিশ।  সে দেশের অপরাধ তদন্ত সংস্থা তার বিরুদ্ধে মানবপাচার ও প্রায় ৫৩ মিলিয়ন কুয়েতি দিনার (প্রায় ১ হাজার ৪০০ কোটি টাকা) পাচারের বিষয়ে তথ্য প্রমাণ পাওয়ার পর এবং জামিনের আবেদন নাকচ হওয়ার পর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

 

এছাড়া তার মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানে তল্লাশি চালিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও প্রমাণ সংগ্রহ করে কুয়েতের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এরপর ১৭ সেপ্টেম্বর পাপলুর মামলার বিচারিক প্রক্রিয়া শুরু হয়।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com