জগন্নাথপুরে ধান কাটাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৩০

প্রকাশিত: ১:৪০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৬, ২০১৬

জগন্নাথপুরে ধান কাটাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৩০

songorso
সুরমা মেইল নিউজ : সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে জমির ধান কাটা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে দু’পক্ষের কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছে। আহতদেরকে জগন্নথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার (৫এপ্রিল) এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে আলা মিয়া (৩৫) শফিক মিয়া (৪০), আতাউর রহমান (২৫), লায়েক মিয়া (২২), আমিনুল মামুন (২৬), সায়েক মিয়া (২৫), করিম উদ্দিন সাইফুল ইসলাম (২৭), ছুরুক মিয়া (৫৫), লাহিন মিয়া (৩০), আনহার মিয়া (৩১), জলাল মিয়া (৩৫), আলী নুর (২৫), নজরুল মিয়া (২২), আবুল হোসেন (৩০), বাবু মিয়া (২৯), আরশ মিয়া (৫০), খলিল মিয়া (৪০), রফিক মিয়া (২৮), জহির মিয়া (২৮), ঠাকুর মিয়া (৫৫), লিটন মিয়া (২৮), মকবুল ইসলাম (৩৫)। বাকি কয়েক জনের নাম জানা যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নের মোরাদাবাদ গ্রামের সাবেক ইউপি মেম্বার হাজি আবদুল ওয়াহিদের মালিকানাধীন বোরো ক্ষেত থেকে পাশের গ্রামের তেঘরিয়া গ্রামের গিয়াস মিয়ার কিছু শ্রমিক ধান কেটে নিয়ে যায়। এ বিষয়টি আবদুল ওয়াহিদের কাজের লোক জামালউদ্দিন জানতে চাইলে গিয়াস মিয়ার পক্ষের লোকজনের সঙ্গে তার কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তাকে মারধর করে। পরে গিয়াস মিয়ার লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মোরাদাবাদ গ্রামে হামলা চালায়। এতে উভয় গ্রামের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। দুই ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ৩০ জন আহত হয়। সাবেক ইউপি সদস্য হাজি আবদুল ওয়াহিদের পুত্র শাহিনুর মাহমুদ জানান, আমাদের জমির ধান জোর করে কেটে নিয়ে যায় গিয়াস মিয়ার লোকজন। পরে তারা অস্ত্র নিয়ে গ্রামে প্রবেশ করে হামলা চালিয়ে কাঁচার মিয়া দোকান ভাঙচুর করে। এ ছাড়া হাফিজুর রহমানের বাড়ির সীমানার দেয়ালও ভেঙে দিয়েছে তারা। এ অভিযোগ অস্বীকার করে গিয়াস মিয়ার জগন্নাথপুর থানার ওসি মুরছালিন জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়েছি। এ ব্যাপারে থানায় কোনো মামলা করা হয়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Flag Counter

আমাদের ভিজিটর সংখ্যা

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com