জাফলংয়ে পর্যটকদের উপর স্বেচ্ছাসেবকদের হামলা: ইউএনও’র প্রত্যাহার দাবি

প্রকাশিত: ৫:০৬ অপরাহ্ণ, মে ৫, ২০২২

জাফলংয়ে পর্যটকদের উপর স্বেচ্ছাসেবকদের হামলা: ইউএনও’র প্রত্যাহার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়াইনঘাট :
সিলেটের জাফলংয়ে বেড়াতে আসা পর্যটকদের উপর হামলা চা‌লি‌য়ে মারধর করেছে উপজেলা প্রশাসনের টোল কাউন্টারে নিযুক্ত স্বেচ্ছাসেবকরা। বৃহস্পতিবার (০৫ মে) দুপুর দুইটার দিকে টিকেট কেনাকে কেন্দ্র করে নারী-পুরুষ পর্যটকদের উপর এ হামলা চালায় তারা।

 

এ ঘটনার একটি ভিডিও চিত্র ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। উঠেছে সমালোনার ঝড়।

 

ঘটনার সাথে জড়িত দু’জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। তারা হলো- উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের বাবুল মিয়ার ছেলে সেলিম আহমদ (২৫) ও পণ্যগ্রামের লক্ষণ (২১)।

পুলিশের হাতে আটক দুই সেচ্চাসেবক।


অনেকে লিখেছেন- “পর্যটকদের সাথে স্বেচ্ছাসেবকদের আচরণ সত্যিই খুবই ঘৃণিত। লজ্জাজনক!!, জাফলং পর্যটন কেন্দ্রে নারী পর্যটকদের উপর হামলাকারী গুন্ডাদেরকে অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে!!”

 

অনেকে দাবি জানিয়েছেন- দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির পাশাপাশি বন্ধ হোক টিকিটের নামে চাদাবাজি।

 

স্থানীয় ও পর্যটকরা জানায়, সিলেট থেকে একটি পরিবার জাফলংয়ে বেড়াতে আসেন। এসময় জাফলং ট্যুরিস্ট স্পটে প্রবেশে উপজেলা প্রশাসনের টোল কাউন্টারে ফি দেয়া নিয়ে কথা কাটাকাটি হয় স্বেচ্ছাসেবকদের। এর জের ধরে নারী-পুরুষসহ ৬ পর্যটকের উপর হামলা চালায় কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবক।এসময় তাদের আত্মচিৎকারে আরও কয়েকজন পর্যটক এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করেন।

 

এ ব্যাপারে গোয়াইনঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম নজরুল বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে জড়িত দু’জনকে আটক করা হয়েছে।

 

এঘটনায় জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান কামাল আহমদ বলেন, জাফলং পর্যটন কেন্দ্রে ১০ টাকার টিকেটের জন্য সেচ্ছাসেবীরা হামলা করেছে এটা বৃহত্তর জৈন্তাবাসীর জন্য লজ্জার৷ আমি গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী (ইউএনও) কর্মকর্তার আপসারনের দাবী জানাচ্ছি এবং সেই সাথে হামলাকারীদের শুধু গ্রেফতার নয় দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি৷

 

তিনি আরও বলেন, অভিলম্বে এই অযৌতিক টিকেট কাউন্টার বন্দ করে দিতে হবে৷ নিচের পর্যটন সংশ্লিষ্ট দোকান হতে অবৈধ ভাবে ইজারার নামে চাঁদাবাজী বন্দ করতে হবে৷ জাফলং শুধুমাত্র গোয়াইনঘাট উপজেলার নয় এটি বৃহত্তর জৈন্তাবাসীর সম্পদ৷ ইউএনও’র অপসারণ, কাউন্টার অপসারণ এবং হামলাকারীদের গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি নিশ্চিত না করা হলে বৃহত্তর আন্দোলনের ঘোষনাসহ সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক বন্দ করা হবে৷

 

এ ব্যাপারে জানতে গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী (ইউএনও) কর্মকর্তা তাহমিলুর রহমানের মুটোফোনে কয়েক বার যোগাযোগ করা তিনি কল রিসিভ করেন নি।

 

ভিডিওতে দেখুন হামলার চীত্র


সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com