ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ শাহবাজপুর

প্রকাশিত: ১:৪৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৫, ২০১৬

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ শাহবাজপুর

1469390679

সুরমা মেইল নিউজ : ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ব্রাহ্মণবাড়িয়া অংশের শাহবাজপুর ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছে যাতায়াতকারী যানবাহনগুলোর চালকরা। বিকল্প সড়ক না থাকায় সেতুটি দিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেলে সিলেট থেকে আহরিত পাথর, কয়লা, চুনাপাথর, মত্স্য ও কৃষিজাত পণ্য সারাদেশে সরবরাহ বন্ধ হয়ে যেতে পারে। সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেলে সাধারণ যাত্রীদের পোহাতে হবে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ।

জানা যায়- তিতাস নদীর উপর ২০৩ মিটার দীর্ঘ সরাইল উপজেলার শাহবাজপুর ব্রিজটি ১৯৬৬ সালে প্রথম নির্মাণ করা হয়। মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্রিজের দুইটি স্প্যান ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে বেইলি ব্রিজের মাধ্যমে পুনঃস্থাপন করা হয়। যুদ্ধবিধ্বস্ত সেতুসমূহের পুনঃনির্মাণ প্রক্রিয়ায় এই সেতুর দুইটি স্প্যান পুনঃনির্মাণ করা হয় ১৯৯২-১৯৯৩ সালে। ২০১৬ সালের মার্চ মাসে সেতুটির মাঝের স্প্যানের গার্ডারে ফাটল দেখা দিলে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী একটি টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন। টেকনিক্যাল কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী মাঝের স্প্যানে ২০০ ফুট বেইলি ব্রিজ দুই লেনে স্থাপন করা হলেও যানবাহন চলাচলে ঝুঁকি রয়ে গেছে।

মহাসড়কে চলাচলকারী বিভিন্ন যানবাহনের চালকরা জানান- এই সেতু দিয়ে তারা অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। যেকোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছে তারা।
সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এখানে নতুন একটি ব্রিজ নির্মাণ ও পুরাতন ব্রিজটি সংস্কারের জন্য ৬৭ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা ব্যয়ের একটি প্রকল্প প্রস্তাব গ্রহণ করেছে, যা এরই মধ্যে একনেকে অনুমোদিত হয়। প্রস্তাবিত সেতুর মোট দৈর্ঘ্য ২১৯.৪৫৬ মিটার ও প্রস্থ ১৪ মিটার। সেতুটি মোট ৬টি স্প্যান, ৫টি পিয়ার এবং ৮০টি পাইলের উপর নির্মিত হবে। নতুন সেতুতে হালকা যান চলাচলের জন্য আলাদা লেনের ব্যবস্থা থাকবে।

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর ব্রাহ্মণবাড়িয়া উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আমীর হোসেন জানান- নতুন ব্রিজ নির্মাণের লক্ষ্যে খুব শিগগিরই দরপত্র আহ্বান করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com