নবীগঞ্জে মসজিদে মিলাদ নিয়ে দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত ৭০

প্রকাশিত: ১২:২৬ পূর্বাহ্ণ, মে ৩, ২০১৮

নবীগঞ্জে মসজিদে মিলাদ নিয়ে দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত ৭০

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে পল্লীত আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে পবিত্র শবে-বরাতর রাত মসজিদ মিলাদ পড়ানোকে  কেন্দ্র করে দু’পক্ষের দফায় দফায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ উভয় পক্ষের অন্তত ৭০ জন আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার (০১ মে) ও বুধবার (০২ মে) নবীগঞ্জ উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের খনকাড়িপাড়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে।

গ্রামবাসী ও আহত সূত্র জানা যায়, মঙ্গলবার (০১ মে) দিবাগত রাত পবিত্র শবে-বরাত উপলক্ষে খনকাড়িপাড়া গ্রামর সাহান চৌধুরী মসজিদে মিলাদ পড়ানোর জন্য শিরনী নিয়ে প্রবেশ করে। এ সময় তিনি নামাজের আগ মিলাদ পড়ার জন্য ঈমাম সাহবক অনুরোধ করেন। এতে গ্রামের মুকিত চৌধুরী, সাহেল ও রিপন বাঁধা দেয়। তারা জানায়- নামাজের পর মিলাদ হবে। এ সময় অপর পক্ষের লন্ডন প্রবাসী মনাল চৌধুরী ও সাহান চৌধুরীর লোকজন মিলাদ নামাজের আগে হবে বলে জানায়। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে দু’পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। বাদ এশা এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন লোক গুরতর আহত হয়। পরে এ ঘটনার সুত্রধরে বুধবার দুপুরে আবারা দু’পক্ষের লাকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ভয়াবহ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ৫০জন আহত হয়। ঘটনার খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে।

স্থানীয় এলাকাবাসী তাদর উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। এর মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় ১০জনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

গুরুতর আহতরা হলেন- আবু বক্কর (৫০) শাহ সাহান (৩০) শকুল (১৮) ইজাজ মিয়া (৭০) জুনদ (১০) ইমানুর (২০) আবু ইউসুফ (৫০) রবিউল (২৫) মুহিদ (৪৫) রায়হান চধুরী (৩২) রাবি চধুরী, (১৮) মুহিবুর রহমান (৫২) সাহল চধুরী (৪১) আব্দুল মুকিত (৪৫) মারফ মিয়া (৫৬) জুয়ল আহমদ (৩২) জবার (৭০) শাকিল (২৫) সাহাগ আহমদ (২৫)।

এ ঘটনার পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছ। ওই গ্রামর হুইপ এর জামাতা যুবলীগ নতা রাহুল চৌধুরী গং ওই গ্রামের ছাত্রদল নেতা রয়াছ চৌধুরীর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে গ্রামের আদিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। এ নিয়ে বিভিন্ন সময় উভয় পক্ষের মধ্যে দাঙ্গা-হাঙ্গামা ও মামলা মোকদ্দমা চলে আসছে। এ নিয়ে আতংকে আছেন খনকাড়িপাড়া গ্রামের সাধারণ লোকজন।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি আতাউর রহমান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেই।এখনো ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। কোন পক্ষ এখনো মামলা দেয়নি, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  

Flag Counter

আমাদের ভিজিটর সংখ্যা

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com