নির্ধারিত এলাকার বাইরে যেতে পারবে না রোহিঙ্গারা : সেনাপ্রধান

প্রকাশিত: ৭:১৯ অপরাহ্ণ, মে ৫, ২০১৮

নির্ধারিত এলাকার বাইরে যেতে পারবে না রোহিঙ্গারা : সেনাপ্রধান

বাংলাদেশ থেকে মিয়ানমারে ফিরে যাওয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীরা যত দিন তাদের জন্য তৈরি ‘আদর্শ গ্রামে’ থাকবে, তত দিন তারা নিরাপদ থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির সেনাপ্রধান মিন অং হলাইং।

শনিবার এএফপির প্রতিবেদনে জানানো হয়, গত ৩০ এপ্রিল মিয়ানমারের রাজধানী নেপিডোতে দেশটিতে সফররত জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলের কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় সেখানকার ক্ষমতাশালী সেনাপ্রধান মিন অং হলাইং এসব কথা বলেন।

সেনাপ্রধানের বক্তব্যে রোহিঙ্গাদের মধ্যে ফিরে যাওয়ার পর স্থায়ী বসত নিয়ে নতুন করে আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

মিয়ানমার সেনাপ্রধান বলেন, রোহিঙ্গারা যত দিন তাদের জন্য তৈরি ‘আদর্শ গ্রামে’ থাকবে, তত দিন তারা নিরাপদ। নিজের ফেসবুক পেজে  দেওয়া এক পোস্টে তিনি বলেন, জাতিসংঘ কর্মকর্তাদের বলা হয়েছে, রোহিঙ্গারা তাদের জন্য সুনির্দিষ্ট এলাকার মধ্যে থাকলে তাদের নিরাপত্তা নিয়ে কোনও দুশ্চিন্তার প্রয়োজন নেই।

মিন অং হলাইং রোহিঙ্গাদের ‘বাঙালি’ বলে মন্তব্য করে বলেছেন, রাখাইনে দীর্ঘদিন বাস করলেও তারা কখনো মিয়ানমারের জাতিসত্তা ছিল না—এটাই তাঁর বক্তব্যের প্রতিফলন।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের সেনাবাহিনী কর্তৃক হত্যা, আগুনে পোড়ানো ও ধর্ষণের যে মর্মস্পর্শী বর্ণনা দিয়েছেন, এসব অভিযোগে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন মিয়ানমারের সেনাপ্রধান। তিনি এসব বর্ণনাকে ‘অতিরঞ্জিত’ বলেছেন।

মিয়ানমারের সেনাপ্রধান বলেছেন, ‘বাঙালিরা কখনোই বলবে না যে সেখানে খুশিমনে গেছে। তাদের অনেক কষ্ট হয়েছে বা তাদের ওপর নির্যাতন করা হয়েছে—এমন কথা বলে তারা সহানুভূতি আদায় করবে।

এর আগে জাতিসংঘের অনুসন্ধানে বার্মিজ সেনাবাহিনী কর্তৃক রোহিঙ্গাদের ওপর ভয়াবহ যৌন সন্ত্রাসের আলামত পেলেও মিয়ানমারের সেনাপ্রধান তা নাকচ করে দেন। এরইমধ্যে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে তাদেরকে ‘নিষিদ্ধ তালিকা’য় রেখেছে জাতিসংঘ।

তবে সম্প্রতি নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠকে বার্মিজ সেনাপ্রধান দাবি করেছেন, মিয়ানমারের সেনা-ইতিহাসে কোনও যৌন নিপীড়নর নজির নেই।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com