পেপার পয়েন্ট ও জেল রোড পয়েন্টে ‘ডিভাইডার’ অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ১১:৩৯ অপরাহ্ণ, মে ৩, ২০১৮

পেপার পয়েন্ট ও জেল রোড পয়েন্টে ‘ডিভাইডার’ অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন

নগরীর পেপার পয়েন্ট ও মহাজনপট্টির জেল রোড পয়েন্টের রোড ডিভাইডার অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে সিলেট ব্যবসায়ী সমিতি ও যানবাহন নিয়ন্ত্রণ সমন্বয় পরিষদ। এসময় রোড ডিভাইডার অপসারণের জন্য জোর দাবী জানানো হয়।

বৃহস্পতিবার (০৩ মে) এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।

মানববন্ধনে সিলেট জেলা ট্রাক পিকআপ কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন, রাজা জিসি রোড ব্যবসায়ী সমিতি, করিম উল­াহ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতি, সিটি হার্ট ব্যবসায়ী সমিতি, স্বর্ণ ব্যবসায়ী ব্যবসায়ী সমিতি, হকার্স মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতি, লালদিঘী নতুন মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতি, কামালগড়, ছড়ারপাড়, মাছিমপুর এলাকাবাসী ও কালীঘাট শ্রমিক কল্যাণ সংস্থার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সিলেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. জিয়াউল হকের সভাপতিত্বে ও দেলওয়ার হোসেন ও যানবাহন নিয়ন্ত্রন সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হোসেন দুলালের যৌথ পরিচালনায় মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ও সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।

এসময় সাবেক মেয়র রোড ডিভাইডার অসারণে ৭ দিনের আলটিমেটাম দিয়ে বলেন, নগরীতে মুক্ত চলাচল করতে জেলরোড-বন্দরবাজার সড়কে ডিভাইডারগুলো বিভিন্ন অসুবিধা সৃষ্টি করছে। এই সড়কে মানুষ লাশ নিয়ে যেতে পারে না। ব্যবসায়ীরা জরুরী লেনদেনের জন্য সঠিক সময়ে কর্মস্থলে যেতে পারেন না। আগামী ৭ দিনের মধ্যে ডিভাইডারগুলো অপসারণ করার দাবি জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, আমি জনগণের পাশে ছিলাম, পাশে থাকবো। আশা করি ট্রাফিক পুলিশ ও সিটি কর্পোরেশন প্রশাসন জনগণের দুর্ভোগ লাঘবে ডিভাইডারগুলো অপরসারণ করবে। যদি না করে তাহলে জনগণকে নিয়ে আমরা অপসারণের ব্যবস্থা করবো। ব্যবসায়ীরা বার বার এ বিষয়টি সিটি কর্পোরেশন, পুলিশ প্রশাসনকে অবগত করার পরও কোনো গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। বার বার ব্যবসায়ীদের এ দাবিকে অবহেলা করা হয়েছে। ট্রাফিকের কাজ ট্রাফিক করবে, এতে রাস্তা বন্ধ করার কোন প্রয়োজন হয় না।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন যানবাহন নিয়ন্ত্রন সমন্বয় পরিষদের সভাপতি আবুল হোসেন, সিলেট চেম্বারের সহ সভাপতি এমদাদ হোসেন, মেট্রোপলিটন চেম্বারের পরিচালক হুরায়রা ইফতার হোসেন, পরিচালক মুকির হোসেন, সিলেট জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি দিলু মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গফুর, সহ সভাপতি হাসমত আলী হাসু, ১নং সদস্য কানু মিয়া, ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মস্তাক আহমদ, ছড়ার পারের পক্ষে জাহাঙ্গীর মিয়া, হাজী শামীম আহমদ, কামালগড়ের পক্ষে কয়েছ আহমদ, মস্তাফিজুর রহমান পাপ্পু, লাল দিঘীপাড়ের ব্যবসায়ী মো. সামছুল আলম, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাজী ফারুক আহমদ, হায়দর খান, স্বপন কর্মকার, বদরুল আলম মজনু, আব্দুল আউয়াল মিন্টু, হাজী আমিন উদ্দিন, হাজী রহমত মিয়া, মো. শাহ আলম শাহীন, মো. আমিন উদ্দিন, হাজী সিয়াদ জাহিদ উদ্দিন, মো. ছাদেক আহমদ, এম.এ মতিন, জব্বার মিয়া, কলিম আহমদ, ফজল করিম প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  

Flag Counter

আমাদের ভিজিটর সংখ্যা

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com