‘বন্যার পানি কমার সাথে সাথে পুনর্বাসনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে’

প্রকাশিত: ৮:৪১ অপরাহ্ণ, জুন ২২, ২০২২

‘বন্যার পানি কমার সাথে সাথে পুনর্বাসনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে’

কানাইঘাট প্রতিনিধি :
সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে তাৎক্ষণিক উপজেলা প্রশাসন, আওয়ামী লীগ, রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করেছেন কানাইঘাট-জকিগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ¦ হাফিজ আহমদ মজুমদার।

 

কানাইঘাট ও জকিগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শন শেষে বুধবার (২২ জুন) দুপুর ১টায় উপজেলা সভা কক্ষে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

এ সময় সংসদ সদস্য আলহাজ¦ হাফিজ আহমদ মজুমদার উপজেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ প্রশাসনের কর্মকর্তা, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি ও সূধীজনদের সাথে কথা বলেন।

 

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মুমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজমুল ইসলাম হারুনের পরিচালনায় মতবিনিময় সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন্ত ব্যানার্জি, জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মস্তাক আহমদ পলাশ, উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ প্রথম ও দ্বিতীয় দফায় ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি সংসদ মজুমদারের কাছে তুলে ধরে বলেন, এবারের বন্যায় গোটা উপজেলার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়েছে। বন্যার হাত থেকে কানাইঘাটবাসীকে রক্ষা করতে হলে সুরমা নদীর ভাঙন কবলিত ডাইকগুলো উঁচু করে টেকসই বাঁধ নির্মাণ ও ক্ষতিগ্রস্ত ভাঙনের সম্মুখীন সুরমা ডাইকগুলো মেরামত কানাইঘাট-দরবস্ত, গাজী বোরহান উদ্দিন ও কানাইঘাট-সুরইঘাট সড়কে ভয়াবহ বন্যায় বড় বড় ভাঙনের স্থানগুলো সংস্কার করে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক করণ এবং বন্যায় ভেঙে ও বিধ্বস্ত হয়ে যাওয়া হাজার হাজার বাড়ি-ঘরের পুর্নবাসনের ব্যবস্থা গ্রহণ, ক্ষতিগ্রস্ত হাজার হাজার কৃষকদের সরকারি প্রণোদনা আওতায় আনার পাশাপাশি সচ্ছতার সহিত সরকারি ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের দাবী জানান।

 

সাংসদ মজুমদার উপজেলার সার্বিক বন্যার ক্ষয়ক্ষতি অবহিত হওয়ার পর তার বক্তব্যে বলেন, বন্যা হচ্ছে প্রাকৃতিক দুর্যোগ যা বহুদিন পর সিলেটের মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। কানাইঘাট-জকিগঞ্জের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সহ সরকারের বিভিন্ন দফতরের মন্ত্রী এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে তিনি কথা বলেছেন। পানি কমার সাথে সাথেই সুরমা ডাইকের ভাঙ্গন কবলিত এলাকায় বেড়িবাঁধ স্থাপন এবং ক্ষতিগ্রস্ত সড়কের সংস্কার এবং পুর্নবাসন করতে যা যা করা দরকার তা সরকারের পক্ষ থেকে নেয়া হবে বলে জানান।

 

তিনি আরো বলেন, হঠাৎ করে ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগের সম্মুখীন আমরা সবাই হয়েছি। সাথে সাথে অনেক কিছু করা সরকারের পক্ষ থেকে সম্ভব নয়। আগে বন্যাা হলে আমরা বিদেশীদের হাত পাততাম, এখন সরকারের সক্ষমতা রয়েছে। পর্যায়ক্রমে বন্যার ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠার পাশাপাশি পুর্নবাসন সহ যা যা করার দরকার তা করা হবে।

 

তিনি বানভাসী মানুষের পাশে এই মুহুর্তে সরকারের পাশাপাশি দলমত নির্বিশেষে সবাইকে পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান এবং সরকারি ত্রাণ সামগ্রী স্বচ্ছতার সহিত বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের নিকট পৌঁছে দেয়ার জন্য উপজেলা প্রশাসন সহ জনপ্রতিনিধিদের প্রতি আহ্বান জানান।

 

এছাড়া মঙ্গলবার (২১ জুন) আলহাজ্ব হাফিজ আহমদ মজুমদার এমপি কানাইঘাট উপজেলার বন্যা দুর্গত লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব, বড়চতুল ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন। এইদিন তিনি বন্যা দুর্গত লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউনিয়নের সুরইঘাট সড়কের আগফৌদ এলাকায় ভয়াবহ ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শনের পাশাপাশি এই ইউনিয়নের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির খোঁজখবর নেন।

 

এরপর তিনি স্থানীয় সুরইঘাট বাজারে লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ পরবর্তীতে চতুল বাজার মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে বড়চতুল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের সাথে পৃথক মতবিনিময় করেন।

 

এ সময় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মুমিন চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের বন পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মস্তাক আহমদ পলাশ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি জামাল উদ্দিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাদিজা বেগম, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ চৌধুরী, লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপি আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফখর উদ্দিন, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাও. জামাল উদ্দিন, বড়চতুল ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মালিক চৌধুরী, আওয়ামীলীগ নেতা বীরমুক্তিযোদ্ধা সুবেদার আফতাব উদ্দিন, মোঃ জাকারিয়া, বড়চতুল ইউপি আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুল আম্বিয়া, আ’লীগ নেতা আব্দুর রশিদ মেম্বার, মীর আব্দুল্লাহ, যুবলীগ নেতা ও চতুল বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম রুবেলসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com