রায়হান হত্যা: অবশেষে ধরা পড়লো সেই এসআই আকবর

প্রকাশিত: ৫:১৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৯, ২০২০

রায়হান হত্যা: অবশেষে ধরা পড়লো সেই এসআই আকবর

মুমিন রশিদ, কানাইঘাট : সিলেটের আলোচিত রায়হান হত্যা মামলার প্রধান আসামী নগরীর বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে ভারতের মেঘালয় থেকে আটক করা হয়েছে।

 

হত্যাকান্ডের ২৮ দিন পর সোমবার (০৯ নভেম্বর) দুপুর ১টার দিকে কানাইঘাটের সীমান্তবর্তী দনা এলাকায় আটক করে বসবাসরত বাংলাদেশীদের কাছে খাসিয়ারা তাকে তুলে দেয়।

 

এসআই আকবর আটকের খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে সিলেটের জেলা পুলিশ ও কানাইঘাট থানা পুলিশ সীমান্ত এলাকায় ছুটে গিয়ে স্থানীয়দের কাছ থেকে আকবরকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসছেন বলে থানার এস.আই স্বপন চন্দ্র সরকার জানিয়েছেন।

 

১১ অক্টোবর ভোরে সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে নিহত হন নগরীর আখালিয়ার নেহারিপাড়ার রফিকুল ইসলামের ছেলে রায়হান। এ ঘটনায় সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন নিহতের স্ত্রী। মামলার পর থেকেই পলাতক ছিলেন বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া।

 

রায়হান নিহতের ঘটনায় এসআই আকবরসহ বন্দরবাজার ফাঁড়ির চার পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত ও তিনজনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। পরবর্তীতে আকবরকে পালাতে সহায়তা করায় বরখাস্ত করা হয় ফাঁড়ির এসআই হাসানকে।

 

মামলাটি বর্তমানে পিবিআই তদন্ত করছে। দায়িত্ব পেয়েই বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ি, নগরীর কাস্টঘর ও নিহতের বাড়ি পরিদর্শন করে পিবিআই টিম। এরপর রায়হানের মরদেহ কবর থেকে তুলে পুনরায় ময়নাতদন্ত করা হয়। দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী, রায়হানের দেহে ১১১টি আঘাতের চিহ্ন ছিল। আর মৃত্যু হয়েছে লাঠি জাতীয় ভোঁতা অস্ত্রের আঘাতে।

 

এদিকে, রায়হান হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে বরখাস্ত হওয়া দুই কনস্টেবলকে গ্রেফতার দেখায় পিবিআই। এরপর তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। গেফতার করা হয় রায়হানকে ফাঁড়িতে তুলে নিয়ে যাওয়া এএসআই আশেক এলাহী ও ছিনতাইয়ের অভিযোগ করা সাঈদ নামে একজনকেও।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com