শুধু বাংলাদশেই নয় বিশ্ব ক্রিকেটের সম্পদ তাসকিন : শোয়েব

প্রকাশিত: ৫:৪৯ অপরাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০১৬

শুধু বাংলাদশেই নয় বিশ্ব ক্রিকেটের সম্পদ তাসকিন : শোয়েব

Shoib-akhter20160321112551

স্পোর্টস ডেস্ক : তাসকিন আহমেদ শুধু বাংলাদেশেরই নয়, বিশ্ব ক্রিকেটের সম্পদ। মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের সাবেক স্পিডস্টার শোয়েব আখতার। আইসিসি কর্তৃক তাসকিন আহমেদের অ্যাকশন অবৈধ ঘোষণা করে নিষিদ্ধ করাটা মেনে নিতে পারছেন না তিনিও। একই সঙ্গে বাংলাদেশের দুই বোলারকে নিষিদ্ধ করার বিষয়টা মেনে নিতে পারছেন না ক্রিকেট বিশ্বের অনেক রথি-মহারথিও। অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তী ইয়ান চ্যাপেলও বিষয়টা মেনে নিতে না পেরে মিডিয়ায় নিজের হতাশার কথা জানিয়েছেন।

আইসিসির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করে ইতিমধ্যেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আইসিসিতে আপিল করেছে। বিসিবি জোর তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে যেন, চলতি বিশ্বকাপেই তাসকিনকে ফেরত পাওয়া যায়। আরাফাত সানির অ্যাকশনে সমস্যা থাকতে পারে। এ কারণে তাকে নিয়ে আইসিসির দেখানো পথেই হাঁটছে বিসিবি।

কিন্তু তাসনিকের বোলিংয়ে নির্ধারিত সীমা ১৫ ডিগ্রিরও বেশি হাত বেঁকে যাওয়ার বিষয়টি মেনে নিতেই পারছে না কেউ। আইসিসি পরীক্ষার যে রিপোর্ট দিয়েছে তাতে তাসকিনকে নিষিদ্ধ করারও কোন ইস্যু খুঁজে পাওয়া যায়নি। এমনকি পরীক্ষাটাও যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়নি বলেও অভিযোগ উঠছে।

এসব যুক্তি তুলে ধরেই আইসিসির কাছে তাসকিনের নিষেধাজ্ঞা স্থগিতের আহ্বান জানিয়ে আপিল করেছে বিসিবি। ফলে বাংলাদেশের ক্রিকেট ভক্তদের আশা, খুব দ্রুতেই ফিরবেন তাসকিন। পাকিস্তানের পেস কিংবদন্তী শোয়েব আখতারও প্রত্যাশা করেন, দ্রুতই ফিরবেন তাসকিন। টুইটারের মাধ্যমেই এ প্রত্যাশার কথা জানান শোয়েব।

টুইটারে শোয়েব আখতার লেখেন. ‘সত্যিকারার্থেই তাসকিনের জন্য খারাপ লাগছে। আশা করছি, খুব দ্রুতই আইসিসির কাছ থেকে ক্লিয়ারেন্স পেয়ে যাবে সে। কারণ, বিশ্ব ক্রিকেটের একটি সম্পদ সে।’

শোয়েবের এই টুইটে রি-টুইট করেছেন বাশরাত আব্বাস নামে একজন। তিনি লিখেছেন, ‘তাসকিন আহমেদের কথা শুনে খুব কষ্ট পেয়েছি। আইসিসির অন্তত উচিৎ ভালোমানের বোলারদের নিষিদ্ধ করাটা বন্ধ করা। এমনকি তারা বিশ্বকাপের মাঝখানে এসেই এই কাজটা করলো।’

খালিদ আজিজ খান নামে একজন লিখেছেন, ‘স্যার, আপনি কি বলতে পারবেন ভারত, অস্ট্রেলিয়া কিংবা ইংল্যান্ডের কোন বোলার অবৈধ অ্যাকশনের দায়ে নিষিদ্ধ হয়েছে, এখনও পর্যন্ত?’

শোয়েব আহমেদ তানিম নামে একজন লিখেছেন, ‘তাসকিন আহমেদের সঙ্গে স্রেফ অবিচার করেছে আইসিসি। আইসিসিরমত একটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে এমনটা আশা করা যায় না। অফসস, এটা আসলেই একটা ইন্ডিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল।’ নাভিদ রিয়াজ নামে একজন লিখেছেন, ‘ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের পরই তাসকিনকে ক্লিয়ার করে দেবে আইসিসি।’

এভাবে অন্তত ১০০’র ওপর রি-টুইট হয়েছে শোয়েব আখতারের টুইট পোস্টে। যেখানে প্রায় সবারই মন্তব্য, তাসকিনের প্রতি অবিচার করেছে আইসিসি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Flag Counter

আমাদের ভিজিটর সংখ্যা

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com