সিলেটে কি হবে কাল

প্রকাশিত: ২:৪৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৪, ২০১৬

সিলেটে কি হবে কাল

Awamn + bmo
ফয়সল আহমদ : কাল ৫ জানুয়ারিকে ঘিরে সারাদেশের সাথে সিলেটের রাজনৈতিক অঙ্গন উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। আর সাধারণ মানুষের মাঝে বিরাজ করছে উৎকন্ঠা আর চাপা আতংক কি হবে রাজপথের অবস্থা। নিজ নিজ অবস্থান থেকে সরকারীদল ও বিএনপি রয়েছে নিজ নিজ অবস্থানে কঠোর। এবারও সিলেটে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি এই দিবসকে কেন্দ্র করে পৃথক পৃথক কর্মসূচি দিয়েছে। আওয়ামী লীগ পালন করবে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ আর বিএনপি পালন করবে ‘গণতন্ত্রের হত্যা দিবস’। সিলেট জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে এ দিনে প্রতিবাদ মিছিল ও বিক্ষোভ মিছিল করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে তারা রবিবার সকালে মিছিল-সমাবেশে অনুমতি চেয়ে স্থানীয় প্রশাসনের কাছে আবেদন করেন। কিন্তু এ ব্যাপারে এখনো কোন সিদ্ধান্ত নেয়নি প্রশাসন। এদিকে সিলেট জেলা বিএনপির এক শীর্ষ নেতা বলেছেন সোমবার দিনে কর্মসূচির ব্যাপারে পূর্ণ সিদ্ধান্ত জানা যাবে। তবে এখন পর্যন্ত সিলেট জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা ৫ জানুয়ারিতে প্রতিবাদ মিছিল ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের ব্যাপারে পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছেন। প্রশাসনের আনুষ্ঠানিক অনুমতির অপেক্ষা করছে বিএনপি। অনুমতি না পেলে কি করবে সিলেট জেলা বিএনপি? এমন প্রশ্নের জবাবে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আলী আহমদ বলেন, প্রশাসনের অনুমতি না পেলে আমরা কি করবো এটা এখনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। বিএনপি নেতা আলী আহমদ আরোও বলেন, সিলেটে বিএনপি যাতে কর্মসূচি পালন না করতে পারে, এজন্য আওয়ামীলীগ ষড়যন্ত্র¿ করছে। তাই বিএনপির কর্মসূচির প্রশাসনিক অনুমতি এখনো আটকে রাখা হয়েছে। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন না করতে দেওয়া গণতান্ত্রিক আচরণ নয়। এটি গণতন্ত্র হত্যার শামিল। এদিকে, আজ ৫ জানুয়ারিতে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ও কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আগামী মঙ্গলবার সকাল ১১টায় সিলেট কোর্ট পয়েন্টে মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীদেরকে উপস্থিত থেকে আনন্দ মিছিল ও সমাবেশ সফল করে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট লুৎফুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদরউদ্দিন আহমদ কামরান ও সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ। এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেছেন, আওয়ামী সবসময় শান্তিপূর্ণ ও গঠনমূলক রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। বিএনপি হঠকারি রাজনীতিতে বিশ্বাসী। তাই তারা জনগণ থেকে ছিটকে পড়েছে। বদর উদ্দিন আহমদ কামরান আরোও বলেন, আওয়ামী লীগের কর্মসূচি বেলা ১১ টা থেকে শুরু হয় দুপুর পর্যন্ত চলবে। দুপুর পরে একই স্থানে যদি বিএনপি সমাবেশ করে তাহলে তো সংঘাতের প্রশ্নই ওঠেনা। তিনি বিএনপি নেতৃবৃন্দের প্রতি শন্তিপূর্ণ ও জনবান্ধব কর্মসূচি পালনের আহ্বান জানান। তবে সব মিলে কি হতে চলেছে আগামীকাল এমন আশংখ্যা সাধারণ মানুষের মাঝে তবে কি ২০১৪ সালের সেই ৫ই জানুয়ারির পরিস্তি হতে চলেছে। তবে এসএমপি সূত্র জানায় সব রকম পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রনে সব রকম প্রস্তুতি রয়েছে তাদের কেই বিশৃংঙ্খলা সৃষ্টি করলে ছাড় দেওয়া হবে। আরেকটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে কালকের পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রনে রাখার জন্য অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করবে এসএমপি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  

Flag Counter

আমাদের ভিজিটর সংখ্যা

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com