প্রচ্ছদ

সুনামগঞ্জে বিয়ে বাড়িতে খাবার খেয়ে হাসপাতালে ৫৬ জন

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:২৫

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুনামগঞ্জ

সুনানমগঞ্জে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে খাবার খেয়ে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এদের মধ্যে ৫৬জনকে বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জেলার সিভিল সার্জন বলছেন, ফুড ফয়েজনিংয়ের কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েন তারা।

জানা যায়, বুধবার রাতে সদর উপজেলার মোল্লা পাড়া ইউনিয়নের শাধদপুর গ্রামের মৃত প্রানেশ তালুকদারের মেয়ে চন্দনা তালুকদারের বিয়ের খাবার খেয়ে এ ঘটনা ঘটে। চন্দনা তালুকদারের সাথে দিরাই উপজেলার তাড়ল ইউনিয়নের ডাইয়ারগাঁও গ্রামের মিহির তালুকদারের বিয়ে হয়। বিয়ের খাবারের মধ্যে ছিল মাছ, মুরগীর, মাংস, দই।

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে গিয়ে জানা যায়, বিয়ের খাবার খেয়ে বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টা থেকে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে রোগী ভর্তি হওয়া শুরু হয়। তারা সবাই বুধবার রাতে বিয়ের খাবার খেয়ে অসুস্থ হন। এভাবে সকাল থেকে ৫৬ জন রোগী সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। সবাইকে ডায়রিয়া ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

অসুস্থরা জানান, বিয়েতে খাবার রাতের খাবারের পর সকালে অনেকেরই পেটে ব্যাথা শুরু হয়। এরপর তারা পাতলা পায়খানাসহ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হন।

খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়েছেন কনের মা চন্দা রাণী তালুকদার ও কাকাতো বোন বৃষ্টি রাণী তালুকদার। তাদের অবস্থা গুরুতর হওয়ার কারণে তাদেরকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া কনের বড় ভাই শান্ত তালুকদারও খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবাবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাহবুবুর রহমান জানান, এ ঘটনায় বরের বাড়ির ১৮ জন লোক দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন।

কনের আত্মীয় জিসু মজুমদার বলেন, কি কারণে এমন হল কিছুই বুঝতে পারছি না। আমার নিজের পেটে ব্যাথা ছিল। পরে ওষুধ খেয়েছি। এখনও পেটে ব্যাথা রয়েছে।

বরের আত্মীয় প্রণয় তালুকদার বলেন, দিনের বেলা যারা খেয়েছে তাদের কোনও কিছু হয় নি। আমরা যারা রাতে খেয়েছি তারাই মূলত ডাইরিয়া ও পেট ব্যাথায় আক্রান্ত হয়েছি। কিভাবে কি হল কেউ বুঝতে পারি নি। সকাল থেকেই একজন একজন অসুস্থ হওয়া শুরু হয়।

এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জের সিভিল সার্জন আশুতোষ দাস বলেন, ফুড পয়জনিং থেকে এমন সমস্যা হয়েছে। সবাইকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com