হিজড়াদের চাঁদাবাজিতে অতিষ্ট বালুচরবাসী!

প্রকাশিত: ৭:০৬ অপরাহ্ণ, জুন ২০, ২০২২

হিজড়াদের চাঁদাবাজিতে অতিষ্ট বালুচরবাসী!

নিজস্ব সংবাদদাতা :
হিজড়াদের বেপরোয়া আর লাগামহীন চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ সিলেট মহনগরীর বালুচর এলাকার সাধারণ মানুষ। আর চাঁদা না দিলে করা হচ্ছে অপমান ও লাঞ্ছিত। তাদের কুরুচিপূর্ণ কথা আর অঙ্গভঙ্গির পরিমাণ বেড়েই চলেছে। এক প্রকার জোর করেই নগরবাসীর কাছ থেকে এসব চাঁদা আদায় করছে তারা।

 

বালুচর এলাকার হিজরাদের চাঁদাবাজির শিকার কয়েকজন জানান, এলাকার সাধারণ পথচারি ও দোকানী এমনকি যানবাহন চাকলদের গুনতে হয় হিজড়াদের চাহিদা মতো চাঁদা। দিতেও প্রায় বাধ্য। তা না হলেই নানাভাবে নাজেহাল হতে হয় তাদের কাছে।

 

তারা জানান, এরা নামধারী হিজড়া। তাদের অনেকের বাড়িতে স্ত্রী-সন্তানও রয়েছে। এক শ্রেণীর মানুষেরা এদেরকে আশ্রয়-পশ্রয় দিয়ে যাচ্ছে। শুধু বালুচর নয় সিলেট নগরীতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে তাদের মতো আরও অনেক হিজড়া, রয়েছে তাদের বাহিনী। এদের মদদদাতা কারা?

 

বর্তমানে এদের যন্ত্রণায় অতিষ্ট বালুচরসহ সিলেটবাসী। মাহনির ভয়ে কেউ তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ না করায় দিন দিন তারা আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

 

অনেকে জানান, নানান অপকর্মে জড়িত হিজড়াদের মধ্যে পুরুষ থেকে স্বেচ্ছায় হিজড়া হওয়া সদস্যই বেশি। অনেকেই আবার সুস্থ স্বাভাবিক পুরুষ হয়েও হিজড়া সেজে এসব কাজে লিপ্ত হচ্ছে। শুধুমাত্র চাঁদাবাজিই নয়, তারা জড়িত হচ্ছে মাদক ব্যবসা, চোরাচালান, দেহব্যবসা এবং সমাজ ধ্বংসের মতো গুরুতর অপরাধের সঙ্গে। এদের এখনই রুখে না দিলে ভব্যিষতে ক্ষতির সম্মূখিন হবে সমাজ।

 

রাতের আঁধার নেমে এলেই অনেক হিজড়ার রুপই পালটে যায়। নিশিকন্যা সেজে খদ্দের জুটিয়ে ছিনতাই করে রেখে দেয়া হচ্ছে সাধারণ মানুষের সর্বস্ব।

 

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে কিংবা টাকার ভাগ নিয়ে কখনও কখনও নিজেদের মধ্যেও সৃষ্টি হয় অন্তর্কোন্দল। যদিও এসব অভিযোগ স্বীকার করতে নারাজ হিজড়া গুরুরা।

 

লোকলজ্জার ভয়ে আর প্রশাসনের প্রতি আস্থাহীনতার কারনে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন না অনেকেই। অনেকেই মনে করেন, সাধারণ মানুষের মতো প্রশাসনও এদের কাছে জিম্মি।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েক জনের সাথে আলাপকালে তারা জানান, ভয় দেখানোর কৌশলের শেষ নেই, বাচ্চা নাচাতে দে, নইলে তোরা বিপদে পড়বি! বাচ্চা পানিতে পড়বো, আগুনে পুড়বে, করোনায় মরবো। এমন সব ভয়ঙ্কর অভিসাপ দিয়ে নবজাতকের পরিবারে ভয়-ভীতির সৃষ্টি করে হাজার হাজার টাকা, কাপড়-চোপড়, চাল-ডালসহ বিভিন্ন মালামাল হাতিয়ে নিচ্ছে হিজড়ার দল। মহিলাদের সাথে এতো জঘন্য আচরণ করে যা দেখে মহিলারা ভয়ে চুপ থাকে।

 

তারপরেও হিজড়াদের এসব কাণ্ড নিরবে সহ্য করে যাচ্ছে বালুচর এলাকার মানুষেরা। দেখার যেন কেই নেই।


সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com