ঈদ শুভেচ্ছা জানালেন প্রবাসী দানবীর শাকুর সিদ্দিকী

প্রকাশিত: ৭:৫৬ অপরাহ্ণ, মে ১০, ২০২১

ঈদ শুভেচ্ছা জানালেন প্রবাসী দানবীর শাকুর সিদ্দিকী

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব মুসলমানদের ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সিলেটের অসহায়, কর্মহীন, সহায়-সম্বলহীন মানুষের মুখে হাসি ফুটানো লন্ডন প্রবাসী দানবীর এম এ শাকুর সিদ্দিকী।

 

সোমবার (১০ মে) আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে এক ঈদ বার্তায় এ শুভেচ্ছা জানান তিনি।

 

বিশ্ব মুসলিমের অব্যাহত সুখ, শান্তি, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ কামনা করে ঈদ বার্তায় শাকুর সিদ্দিকী বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের মুসলমানদের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও ঈদ মোবারক জানিয়েছেন।

 

।আরও পড়ুন

 

তিনি আরও বলেন, মাসব্যাপী কঠোর সিয়াম সাধনার পর মুসলমানদের জীবনে এক স্বর্গীয় শান্তি ও আনন্দের বার্তা নিয়ে আসে ঈদুল ফিতর। ঈদুল ফিতরের উৎসব মুসলমানদের নিবিড় ভাতৃত্ববোধে উদ্বুদ্ধ করে। মাসব্যাপী রমজানের আত্মশুদ্ধির মহান দীক্ষার মধ্য দিয়ে আসে ঈদুল ফিতরের আনন্দঘন মুহূর্ত। দেশের বিদ্যমান ক্রান্তি-লগ্নে সব ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে ঈদের আনন্দ নিজেদের ভাগ করে নিতে হবে। তাই ঈদুল ফিতরের শিক্ষা থেকে আমাদের অঙ্গীকার হোক সব হিংসা, বিদ্বেষ ও হানাহানি থেকে মুক্ত হয়ে ন্যায়, সাম্য, ঐক্য, ভ্রাতৃত্ব, দয়া, সহানুভূতি, মানবতা ও মহামিলনের এক ঐক্যবদ্ধ ও ভালোবাসাপূর্ণ সমাজ এবং দেশ গঠনের জন্য একযোগে কাজ করা।

 

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের আঘাতে এবারও হয়তো পূর্বের ন্যায় সবাইকে নিয়ে ঈদের আনন্দ উদযাপন করা সম্ভব হবে না। তবুও আমরা যে যেখানেই থাকি না কেন ঘনিষ্ঠজন, নিকটজনসহ সবাই ঈদের আনন্দ ভাগ করে নেব। কোনো অসহায় ও দুস্থ মানুষ যেন অভুক্ত না থাকে সেজন্য যারা সচ্ছল ব্যক্তি তারা যেন তাদের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন, যাতে নিরন্ন মানুষরাও ঈদের আনন্দের অংশীদার হতে পারে।

 

প্রবাসী দানবীর শাকুর সিদ্দিকী তাঁর ঈদ বার্তায় আরও বলেন, করোনাভাইরাসের মহামারিতে এখন বিশ্ব সম্প্রদায়ের মধ্যে বিরাজ করছে নিরানন্দ, ভয় ও আতঙ্ক। এ অদৃশ্য আততায়ী করোনার কবল থেকে মানুষকে রক্ষা করতে কায়মনোবাক্যে মহান রাব্বুল আলামীনের নিকট দোয়া করি।

 

তিনি বলেন, পবিত্র এ দিনে বাংলাদেশের প্রতিটি গৃহে প্রবাহিত হোক শান্তির অমিয় ধারা। পবিত্র ঈদুল ফিতরে আমি এই কামনা করি।

 

প্রসঙ্গত, এম এ শাকুর সিদ্দিকী মানব সেবার কথা চিন্তা করে ১৯৮৩ সালে গড়ে তুলেন ‘কানাইঘাট এসোসিয়েশন ইউকে’ নামে একটি সংগঠন। যার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি দায়িত্বে রয়েছেন আজও। এ সংগঠনের কাজই শুধু অসহায় মানুষের মূখে হাসি ফুটানো।

 

পরবর্তীতে পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের এগিয়ে নিতে ২০০৮ সালে গড়ে তুলেন ‘কানাইঘাট এডোকেশন ট্রাষ্ট ইউকে’ নামেও আরেকটি শিক্ষমূলক সংগঠন। এই ট্রাষ্টের মাধ্যমে কানাইঘাট ছাড়াও জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট জকিগঞ্জসহ সিলেটের বিভিন্ন উপজেলার সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীদের বই-খাতা, কলম, স্কুল-কলেজ ফি, নগদ অর্থসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনুদান প্রদান করা হয়।

 

এ সংগঠনগুলোর মাধ্যমে চলমান করোনা ভাইরাসে (কভিড-১৯) কর্মহীন অসহায় মানুষদের নিত্যপণ্য ও নগদ অর্থসহায়তা করেছে সংগঠনটির সদস্যবৃন্দ।

 

গত বন্যায় যেমন দুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে, তেমনি দাঁড়িয়েছে শীতার্ত মানুষের পাশেও। প্রতিবছরই প্রাকৃতিক দুর্যোগে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে এ সংগঠনগুলো।

 

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার নিজ বাউরভাগ পশ্চিম গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। হাজি শওকত আলী চৌধুরী ও খাদিজা বেগম চৌধুরী দম্পতির সন্তান লন্ডন প্রবাসি দানবীর এম এ শাকুর সিদ্দিকী।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com