জামাইয়ের দেয়া আগুনে দগ্ধ বৃদ্ধা শাশুড়ি ১৬ ঘণ্টা পর মৃত্যু

প্রকাশিত: ৫:০২ অপরাহ্ণ, মে ৮, ২০১৬

জামাইয়ের দেয়া আগুনে দগ্ধ বৃদ্ধা শাশুড়ি ১৬ ঘণ্টা পর মৃত্যু

ছবি : সংগৃহীত

সুরমা মেইল নিউজ : জামাইয়ের দেয়া আগুনে দগ্ধ শাশুড়ি প্রায় ১৬ ঘণ্টা মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে না ফেরার দেশে চলে গেলেন মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার সহড়াতলা গ্রামে ফুলসুরাতন (৮০) নামের সেই বৃদ্ধা।

রোববার (০৮ মে) বিকেল সোয়া ৩টার দিকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। উন্নত চিকিৎসার জন্য সকালে তাকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে রেফার করা হলেও অর্থাভাবে সেখানে নিতে পারেনি তার পরিবার।

শনিবার দিবাগত মধ্যরাতে নিজ বাড়িতে ঘুমন্ত অবস্থায় তার জামাই হাউস আলী পেট্রোল ঢেলে তার শরীরে আগুন দিলে মারাত্মক দগ্ধ হন তিনি। নিহত ফুলসুরাতন সহড়াবাড়ীয়া গ্রামের মৃত আবু বক্করের স্ত্রী।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকরাম হোসেন জানান, নিহতের লাশ পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্তের প্রস্তুতি চলছে। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

এ বিষয়ে নিহতের মেয়ে আম্বিয়া খাতুন বাদী হয়ে তার প্রাক্তন স্বামী হাউস আলীর নামে গাংনী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। হাউস আলীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান ওসি। পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামী হাসউকে তালাক দেন নিহত ফুলসুরাতনের মেয়ে আম্বিয়া খাতুন। এতে প্রতিশোধ পরায়ণ হয়ে ওঠে হাউস। এর জেরে শনিবার দিবাগত মধ্য রাতে আম্বিয়ার নিজ বাড়িতে যান হাউস। বাড়ির বারান্দায় শুয়ে থাকা শাশুড়িকে প্রাক্তন স্ত্রী মনে করে শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনে তার শরীরের ৮০ ভাগ পুড়ে যায় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com