সহজ ৪ উপায়ে সংশোধন করুন সার্টিফিকেট

প্রকাশিত: ২:২৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২১

সহজ ৪ উপায়ে সংশোধন করুন সার্টিফিকেট

অনলাইন ডেস্ক : চাকরি থেকে শুরু করে যেকোনো কাজে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ বা সার্টিফিকেটের গুরুত্ব অনেক বেশি। কোন ক্ষেত্রে যদি সার্টিফিকেটে আপনার তথ্যের গড়মিল থাকে, তবে  পদে পদে ভোগান্তি পোহাতে হয়। কিন্তু সমস্যা সমাধানের উপায় তো আছেই। বিশেষ করে পথঘাট ও নিয়মকানুন জানা থাকলে কাজটা আরও বেশি সহজ হয়ে যায়।

 

অনেকে এ ধরনের কাজ অফলাইনে করে থাকেন। অথচ বর্তমান যুগ প্রযুক্তিনির্ভর। তাই ঝামেলা এড়াতে অনলাইনে সংশোধন করাই বুদ্ধিমানের কাজ। সার্টিফিকেট সংশোধনের উপায়-

 

ধাপ-১: নোটারি করতে হবে

প্রথমেই একজন আইনজীবীর মাধ্যমে নোটারি বা এফিডেভিট করাতে হবে। এক্ষেত্রে প্রার্থীর নিজের বয়স ১৮ বছরের বেশি হলে নিজে; তবে এর কম হলে প্রার্থীর বাবা কর্তৃক প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট বা নোটারি পাবলিকের কাছ থেকে এফিডেভিট করাতে হবে।

 

ধাপ-২: পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি

নোটারি করার পর যেতে হবে পত্রিকা অফিসের দোরগোড়ায়। যেকোনো দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে হবে। এতে প্রার্থীর সার্টিফিকেট নাম, বাবার নাম, মায়ের নাম, শাখা, পরীক্ষার সাল, পরীক্ষাকেন্দ্রের নাম, রোল নম্বর, বোর্ডের নাম এবং জন্মতারিখ উল্লেখ করে যা সংশোধন করতে চান তা সংক্ষেপে উল্লেখ করতে হবে।

 

ধাপ-৩: যেতে হবে সংশ্লিষ্ট স্কুল কলেজে

নোটারি, পত্রিকায় প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি ও ন্যাশনাল আইডি কার্ড/জন্ম সনদ নিয়ে যেতে হবে স্ব স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। প্রতিষ্ঠান প্রধান বরাবর একটি আবেদন করতে হবে, সঙ্গে সংযুক্ত থাকবে এই কাগজগুলো। পরে স্কুল কর্তৃপক্ষ কলেজের EIIN ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে শিক্ষাবোর্ডে আপনার ডকুমেন্ট স্ক্যান করে সংশোধনের আবেদন করবেন।

 

ধাপ-৪: ফি জমা দিতে হবে

আবেদন শেষে আপনার ফোনে একটি মেসেজ আসবে। এরপর সোনালী ব্যাংকে আবেদন ফি বাবদ ৫৫৮ টাকা জমা দিতে হবে। ফি প্রদানের রশিদ অবশ্যই যত্ন করে রাখতে হবে। আবেদন ফি জমা করার পর সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে আলাদা একটা প্রোফাইল ক্রিয়েট হবে। সেখানে লগ ইন করে মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই সর্বশেষ অবস্থা জানা যাবে। আবেদন ফি জমা দেওয়ার পর কমপক্ষে তিন মাস অপেক্ষা করতে হবে।

 

প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর

আপনার ফোনে মেসেজ দিয়ে প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার খবর জানানো হবে। তখন আপনাকে দেওয়া পাসওয়ার্ড দিয়ে প্রোফাইলে লগ ইন করবেন।  সেখানে নতুন একটা অপশন আসবে ‘ডকুমেন্ট উত্তোলন’। সেই অপশনে গিয়ে ডকুমেন্ট উত্তোলনের আবেদন করবেন। সেখানে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে যে ডকুমেন্ট উত্তোলন করতে চান সেটার জন্য নির্দেশ দিতে পারবেন। এরপর ডকুমেন্ট উত্তোলন করার জন্য আগের মতোই সোনালি ব্যাংকে ৫৫৮ টাকা জমা দিতে হবে।

 

ডকুমেন্ট উত্তোলন ফি জমার দেওয়ার এক সপ্তাহ পর ফোনে ম্যাসেজ পাবনে ডকুমেন্ট রেডি হওয়ার। তখন প্রোফাইলে লগ ইন করে  ডকুমেন্ট ডাউনলোড করে প্রিন্ট করতে হবে। এরপর শিক্ষা বোর্ডে মূল সার্টিফিকেট জমা দিতে হবে। এরপর আবার অফিসে গিয়ে চূড়ান্ত ডকুমেন্টস ও ব্যাংকে জমা দেওয়ার রশিদের মুল কপি জমা দিয়ে বুঝে নিন নতুন সংশোধিত সার্টিফিকেট।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com