সিলেটের বিদ্যুৎ ব্যবস্থার উন্নয়নে ১৮৯১ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন

প্রকাশিত: ১:৩০ অপরাহ্ণ, মে ৪, ২০১৬

সিলেটের বিদ্যুৎ ব্যবস্থার উন্নয়নে ১৮৯১ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন

imagesসুরমা মেইল নিউজ : সিলেটের বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থার উন্নয়নে ১৮৯১ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন করেছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। মঙ্গলবার (০৩ মে) প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে একেনেকর সভায় এই প্রকল্প অনুমোদিত হয়। ‘বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থা উন্নয়ন প্রকল্প, সিলেট বিভাগ’ নামে তিন বছর মেয়াদী এই প্রকল্প মঙ্গলবার একেনেকের সভায় অনুমোদিত হয় বলে জানান সিলেট বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী রতন কুমার বিশ্বাস।

বিদ্যুৎ বিভাগ সূত্রে জানা যায়- সিলেট বিভাগে এক কোটিরও বেশি লোকের বসবাস। এ বিভাগে ক্ষুদ্র, মাঝারি এবং বৃহৎ শিল্পকারখানার প্রসার ঘটতে দ্রুত। তাছাড়া পর্যটন শিল্পেও সমৃদ্ধ জনপদ সিলেট। এজন্য এ বিভাগে বিদ্যুতের চাহিদা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। কিন্তু চাহিদার সাথে তাল মিলিয়ে নিরবিচ্ছিন্নভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহে ঘাটতি রয়েছে। রয়েছে সরবরাহ ব্যবস্থায় ক্রুটি।

সিলেটের এই বিদ্যুৎ সমস্যার নিরসনে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে চিঠি দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টাকে অবহিত করেন। গতবছরের মার্চে অর্থমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টার উপস্থিতিতে সিলেটে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে একটি কমিটি গঠন করা হয়। পরবর্তীতে ওই কমিটি বিদ্যুতের চাপ ও চাহিদা পূরণে এক হাজার ৬৯৪ কোটি টাকার এক প্রকল্প হাতে নেয়ার প্রস্তাব দেয়। বর্তমানে ওই প্রকল্পটির মোট ব্যয় ধরা হয়েছে এক হাজার ৮৯১ কোটি টাকা।

ওই প্রকল্পের প্রস্তাবনা বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে পরিকল্পনা কমিশনে জমা দেয়া হয়। সেখান থেকে প্রকল্পটি একনেক’র সভায় উত্থাপিত হয় মঙ্গলবার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সভায় সিলেটে বিদ্যুৎ সমস্যা নিরসনের ওই মেগা প্রকল্পটি পাস হয়।

বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড-সিলেটের প্রধান প্রকৌশলী রতন কুমার বিশ্বাস বলেন- প্রকল্পের মেয়াদ ধরা হয়েছে মে ২০১৬ থেকে মার্চ ২০১৯ পর্যন্ত।প্রকল্পের ৮৩৮ কোটি টাকা সিলেট সিটি করপোরেশন ও শহরতলি এলাকায় ব্যয় করা হবে বলেও জানিয়েছেন রতন কুমার।

জানা যায়- প্রকল্পের আওতায় রয়েছে ৩ হাজার কিলোমিটার নতুন লাইন নির্মাণ, প্রায় তিন হাজার কিলোমিটার লাইন সংস্কার, ২২টি এমভিএ জিআইএস সাব-স্টেশন স্থাপন ও সংস্কার, ১৭টি বে-এক্সটেনশন ইন গ্রিড সাব-স্টেশন স্থাপন, ৩৪৮৫টি বিতরণ স্টেশন স্থাপন ও সংস্কার, আবাসিক ও প্রশাসনিক ভবন নির্মাণ, ভূমি অধিগ্রহণ প্রভৃতি।

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা রতন কুমার বিশ্বাস আরো জানান, ১৮৯১ কোটি টাকার প্রকল্পের মধ্যে প্রায় ২শ কোটি টাকা বিভিন্ন ধরনের ভ্যাট, ট্যাক্স এবং সংশ্লিষ্টদের বেতন বাবদ খরচ হবে।

প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে বৃহত্তর সিলেট অঞ্চলে বিদ্যুৎ সমস্যা নিরসন হবে বলেও জানিয়েছেন রতন কুমার বিশ্বাস।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com